ডাউনলোড অলরাউন্ডার ভিডিও কনভার্টার (উইন্ডোজ + ম্যাক) দিয়ে। সর্বশেষ ভার্সন এবং দেখে নিন পূর্ণাঙ্গ ফটো টিউটোরিয়াল। ভিডিও কনভার্ট, 3D ফরম্যাটিং, ট্রিমিং, ইফেক্ট দেয়া, জলছাপ দেয়া, সাবটাইটেল সংযোজন থেকে শুরু করে স্ট্রিমিং পর্যন্ত সব করতে পারবেন

আপনারা যারা নিজেরা ভিডিও তৈরী করে তাকে অন্য কোনো ভাবে পরিবর্তন করতে গিয়ে বা নতুন কোনো কিছু সংযোজন করতে গিয়ে চিন্তায় পরে যান বিশেষ করে তাদের জন্য আমার আজকের এই টিউন। আমার আজকের এই টিউনের বিষয় হল 49.99 USD মূল্যের Wondershare video Converter Ultimateসফটওয়্যারটি। এই সফটওয়্যারটি দিয়ে আপনি এতে দেয়া একাধিক অপশনের দ্বারা আপনার ভিডিওকে সাজিয়ে নিতে পারবেন আপনার মনের মতো করে। এই সফটওয়্যার দিয়ে আপনি ভিডিও কনভার্ট করতে পারবেন low ফরম্যাটের ভিডিওতে, অডিও ফরম্যাটে, ওয়েব ফরম্যাটে, এবং সবচেয়ে আকর্ষনীয় বিষয় হল আপনি ভিডিওকে 3D Format- এ কনভার্ট করতে পারবেন। এই সফটওয়্যারটি দিয়ে আপনি আপনার ভিডিও থেকে আপনি আপনার অপছন্দনীয় অংশকে বাদ দিতে পারবেন। আপনি ভিডিওতে দিতে পারবেন মিরর ইফেক্ট। দিতে পারবেন আপনার পছন্দসই কালার ইফেক্ট। আপনার ভিডিওতে দিতে পারবেন জলছাপ এবং করতে পারবেন সাবটাইটেল সংযোজন। এতেই শেষ নয়। এই কনভার্টার দিয়ে আপনি আরো করতে পারবেন যেকোনো ডিভিডি এর ভিডিও এডিট। আবার যেকোনো ভিডিওকে করতে পারবেন ডিস্কবদ্ধ। আর সাথে থাকছে ভিডিওকে স্ট্রিম করার সুবিধা। পারবেন আপনার ভিডিও এবং অডিওর Bit rate পরিবর্তন করার সুবিধা। তাহলে চলুন ডাউনলোড করা যাক এবং দেখা যাক এর ব্যবহার। Mac ব্যবহারকারীরা  এখানে ক্লিক করে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করুন। Additional File(লাইসেন্সড ইমেইল এবং রেজিস্ট্রেশন কী) ডাউনলোড করতে  এখানে ক্লিক করুন । উইন্ডোজ ব্যবহারকারীরা সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে নিচের ফটোতে ক্লিক করুন। আর Additional File(লাইসেন্সড ইমেইল এবং রেজিস্ট্রেশন কী) ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন ।

 Wondershare video Converter Ultimate | Price 49.99 USD



Wondershare video Converter Ultimate | Price 49.99 USD

How To Install



সফটওয়্যার এবং Additional  File ডাউনলোড করা হয়ে গেলে প্রথমে সফটওয়্যারটি ইনস্টল করুন। তারপর উপরের ফটোর চিহ্নিত স্থানে ক্লিক করে Register Button-এ চেপে লাইসেন্সড ইমেইল এবং রেজিস্ট্রেশন কী দিয়ে সফটওয়্যারটি রেজিস্ট্রেশন করে নিন।

 

দেখে নিন এর বহুবিধ ব্যবহার

 

File selection





সফটওয়্যারটি ওপেন করে Add Files অথবা Load DVD তে ক্লিক করুন। এর পর আপনার হার্ডডিস্ক থেকে আপনার পছন্দ অনুযায়ী ফাইল বেছে অথবা ডিভিডি ডিস্ক থেকে ফাইল বেছে Open এ ক্লিক করুন।

Video editing



আপনার তৈরী অথবা আপনার পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো ভিডিওকে এডিট করতে Edit অপশনে ক্লিক করুন।

Video Trim









এই অপশন ব্যবহার করে আপনি ভিডিও থেকে অপ্রয়োজনীয় অংশ সিলেক্ট করে বাদ দিতে পারবেন। আপনি ভিডিও থেকে একাধিক অংশ সিলেক্ট করে নিতে পারবেন। Preference অপশন ব্যবহার করে সিলেক্ট করা অংশ চাইলে বাদ দিতে পারবেন অথবা সিলেক্ট না করা অংশ রেখে দিতে পারবেন। আর সফটওয়্যারের নিচে Merge all videos into one file অপশনটি সিলেক্ট করে আপনি একাধিক ভিডিও একত্রিত করতে পারবেন।

 Video Adjusting







এই অপশন ব্যবহার করে আপনি আপনার ভিডিওকে রোটেট করতে পারবেন। সাথে আপনার ভিডিওতে দিতে পারবেন আকর্ষণীয় মিরর ইফেক্ট যা সাধারণত ছবিতে দেখা যায়। এছাড়া আপনি ভিডিওর স্ক্রিন থেকে ওপ্রে চিত্রের মতো বাদ দিতে পারবেন আশেপাশের অপ্রয়োজনীয় অংশবাদ দিতে পারবেন। আবার Aspect Ratio অপশনটি ব্যবহার করে স্ট্যান্ডার্ড অনুপাত ব্যবহার করতে পারবেন।

 Video Effect





এই অপশন ব্যবহার করে আপনি আপনার ভিডিওতে কালার ইফেক্ট দিতে পারবেন। আপনি সেখানে দেয়া বিভিন্ন স্ট্যান্ডার্ড কালার ইফেক্ট দিতে পারবেন। আবার আপনি চাইলে Volume, Brightness, Contrast, Saturation  এই অপশন গুলো মুডিফাই করে আপনি আপনার মন মতো ভিডিওতে কালার ইফেক্ট দিতে পারবেন।

Video Watermark



এই অপশনটি ব্যবহার করে আপনি আপনার ভিডিওতে জলছাপ দিতে পারবেন। নিচে টেক্সট এবং ইমেইজ জলছাপ দেয়ার বিবরণ দেয়া হল।

Image Watermark





আপনি Image Type অপশনটিতে ক্লিক করে জলছাপ হিসেবে আপনার পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো ধরনের ফটোকে জলছাপ হিসেবে দিতে পারবেন। আপনি ফটোকে ভিডিওর ওপর যেকোনো স্থানে রাখতে পারবেন। আবার আপনি ফটোটিকে যেকোনো সাইজের করে রাখতে পারেন। আর Transparency অপশনটি ব্যবহার করে আপনি ভিডিওর ওপর ফটোটির স্বচ্ছতা নির্ধারণ করতে পারবেন।

Text Watermark





আপনি Text Type অপশনে ক্লিক করে ভিডিওতে জলছাপ হিসেবে যেকোনো লেখা দিতে পারবেন। আপনি এই অপশন দিয়ে যেকোনো ভাষার লেখা জলছাপ হিসেবে দিতে পারবেন। আপনি আপনার লেখাকে যেকোনো সাইজের করে ভিডিওর ওপর যেকোনো স্থানে রাখতে পারবেন। আপনি T অপশনে ক্লিক করে সেখান থেকে আপনি আপনার লেখার ফন্ট, ফন্ট স্টাইল, সাইজ এবং কালার পরিবর্তন করতে পারবেন। এছাড়া আপনি সেখানে Effect অপশনটি ব্যবহার করে লেখার নিচে আন্ডারলাইন কিংবা লেখার মাঝখানে দাগ দিতে পারবেন। লেখার ক্ষেত্রেও আপনি Transparency ব্যবহার করে ভিডিওর ওপর আপনার লেখার স্বচ্ছতা নির্ধারণ করতে পারবেন।

Video Subtitle







আপনি আপনার  ভিডিওতে সাবটাইটেল সংযোজন করতে পারবেন এই সফটওয়্যারটি দিয়ে। ... এরকম চিহ্নিত অংশে ক্লিক করে আপনার হার্ডডিস্ক থেকে সাবটাইটেল ফাইলটি সিলেক্ট করুন। আপনি Tঅপশনে ক্লিক করে সাবটাইটেলের ফন্ট, ফন্ট স্টাইল, কালার এবং সাইজ নির্ধারণ করতে পারবেন। এছাড়া Transparency অপশনটি ব্যবহার করে আপনি ভিডিওর ওপর সাবটাইটেলের স্বচ্ছতা নির্ধারণ করতে পারবেন। আর Position দিয়ে ভিডিওর ওপর সাবটাইটেলের স্থান নির্ধারণ করতে পারবেন।

এভাবে এডিট করা সম্পন্ন হলে OK তে ক্লিক করে আপনার করা পরিবর্তন গুলো সেভ করে নিন।

Making DVD

File Selection



যেই ফাইলটিকে ডিভিডি করবেন সেটিকে সিলেক্ট করুন।

 





Change Template অপশনটি ব্যবহার ডিভিডিতে ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেইজ এবং ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক দিতে পারবেন। যা আপনি ডিভিডি প্লেয়ারে ডিস্ক চালু করার পর ভিডিও চালু করার আগ পর্যন্ত অনস্ক্রিনে চলতে থাকবে। এছাড়াও আপনি এখান থেকে ভিডিওর লেবেল, কোয়ালিটি, ভিডিওর স্ক্রিন রেশিও ইত্যাদি পরিবর্তন করতে পারবেন। এছাড়াও আপনি More অপশন দিয়ে ভিডিওর কালার কোয়ালিটি পরিবর্তন করতে পারবেন। ভিডিওতে আপনার মন মতো প্রয়োজনীয় পরিবর্তন করার পর Burn এ ক্লিক করে আপনার ভিডিওটিকে ডিস্কবদ্ধ করে ফেলুন।

Video Converting



Video Converting হচ্ছে সফটওয়্যারটির মূল বৈশিষ্ট্য। Convert অপশনে এসে আপনি ফাইল সিলেক্ট করে ভিডিওকে কনভার্ট করার জন্য প্রস্তুত করতে পারবেন।

 

















ফাইল সিলেক্ট করার পর Output Format অপশনের নিচে ক্লিক করুন। Format অপশনটি ওপেন হলে সেখানে Video, Audio, HD, Web, 3D এই অপশনগুলি দেখতে পারবেন। Video অপশন থেকে ভিডিওর ফরম্যাট পরিবর্তন করতে পারবেন এবং দিতে পারবেন আপনার ভিন্ন ভিন্ন ডিভাইস উপযোগিতা অনযায়ী মন মতো যেকোনো স্ট্যান্ডার্ড ফরম্যাট। Audio অপশনে গিয়ে আপনি ভিডিওকে ভিন্ন ভিন্ন ডিভাইস উপযোগিতা অনযায়ী অডিওতে রূপান্তরিত করতে পারবেন। আবার HD অপশন থেকেও আপনি ভিন্ন ভিন্ন ডিভাইস উপযোগিতা অনযায়ী ভিডিওকে HD ফরম্যাটে রুপান্তরিত করতে পারবেন। Web অপশন ব্যবহার করে আপনি ভিডিওকে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে প্রদর্শন উপযোগী করে তুলতে পারবেন। আর সবচেয়ে আকর্ষণীয় বিষয় হচ্ছে আপনি আপনার ভিডিওকে আপনার নিজস্ব 3D চশমার কাঁচের কালার অনুযায়ী ভিডিওকে 3D Format এ রূপ দিতে পারবেন। পাশের Device অপশন থেকে আপনি সেখানে দেয়া যেকনো ডিভাইস সিলেক্ট করে আপনি আপনার ভিডিওকে সেই ডিভাইস উপযোগী করে তুলতে পারবেন। এছাড়াও আপনি কনভার্ট অপশনের উপরে দেয়া সেটিংস থেকে আপনার ভিডিওর Encoding, Frame Rate এবং Bit Rate পরিবর্তন করতে পারবেন। সাথে আপনি আপনার ভিডিওর অডিওর Encoding, Sample Rate, Channel এবং Bit Rate পরিবর্তন করতে পারবেন।

Video Streaming





সফটওয়্যারটির উপরে Media Server অপশনে ক্লিক করলে Wondershare Media Server নামে নতুন একটি উইন্ডো ওপেন হবে যেখান থেকে আপনি যেকোনো ফাইল স্ট্রিম করে কাছাকাছি কোন স্ট্রিমিং ডিভাইসের সাথে কানেক্ট করে সেখানে ফাইলটিকে প্লে করতে পারবেন।

টিউন ক্রেডিট নাজমুল হাসান সজীব


কমেন্ট করার জন্য ধন্যবাদ। Conversion Conversion Emoticon Emoticon