ইন্টারনেটের কিছু বিরক্তিকর বিষয় থেকে সহজেই মুক্তির উপায়

প্রতিদিন ইন্টারনেটে একটা না একটা নতুন বিরক্তিকর বিষয় যুক্ত হচ্ছে আর সেটাকে নিয়ে আপনি পড়ছেন যত রকম ঝামেলায়। পৃথিবী যদি নিখুঁত হত তাহলে কিন্তু এসকল বিষয় নিয়ে চিন্তা করবার প্রয়োজন হত না। কিন্তু দুঃখজনক হলেও পৃথিবী নিখুঁত নয় আর তাই আসুন আমরা শিখে নেই কিভাবে আমরা ১৩টি বিরক্তিকর ঝামেলা থেকে নিজেদেরকে মুক্ত রাখবো।

১. রেজিস্টার করতে হবে:

অনেক সংবাদপত্রের সাইটগুলো এখন সংবাদ দেখবার জন্য সাইন-ইন করতে বলে, যার মাধ্যমে আপনার উপর তারা নজর রাখে। এছাড়া আপনি কয়েকটি মাত্র প্রবন্ধ পড়বার সুযোগ পাবেন। এ ধরণের সাইটগুলোর মধ্যে ফাইনান্সিয়াল টাইমস এবং ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল অন্যতম। আপনি যদি নিয়মিত গ্রাহক না হন তাহলে এ এক বিশাল সমস্যা।

সমাধান: ওয়াল জার্নালের লেখাগুলো আপনি পড়তে পারবেন গুগল নিউজ সাইটের মাধ্যমে। আর তাই আপনাকে যদি ওয়ালস্ট্রিট ব্লক করে দেয় তাহলে চলে যান গুগল নিউজ সার্চে এবং সেখানকার সার্চে আপনি যে বিষয়ে আগ্রহী সেটা লিখে সার্চ দিন। সার্চ রেজাল্টে ওয়ালস্ট্রিটের লিঙ্ক ফলো করুন এবং সংবাদটি পরে ফেলুন।



২. অত্যধিক সামাজিক নেটওয়ার্ক সাইট:

ফেসবুক, টুইটার, গুগল+, মাই-স্পেস, ফোর-স্কয়ার এছাড়া আরো অনেক সামাজিক ওয়েবসাইট, যাদের সকলকে যদি আপনি ট্র্যাক করতে যান তো দিন কাবার হয়ে যাবে। হ্যাঁ আপনি যেকোনো একটি পছন্দ করে শুধু তাকেই ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু তাতে দেখা যাবে আপনি মাত্র কয়েকজন বন্ধুর সাথে যোগাযোগ রাখতে পারছেন, সকলের সাথে নয়।

সমাধান: ডিগসবি বা মিবো ব্যবহার করতে পারেন। এই প্রোগামগুলি আপনাকে দিবে একটি ইন্টারফেসের মাধ্যমে কয়েকটি সামাজিক নেটওয়ার্ক ব্যবহারের সুবিধা। যদিও পুরো সাইটটি ব্যবহারের যে আনন্দ তা থেকে হয়তো ব্যাহত হবেন কিন্তু একই সাথে কয়েকটি নেটওয়ার্কের স্ট্যাটাস আপডেটের দিকে অনায়াসে চোখ রাখতে পারবেন।

৩. ভিডিও অ্যাড:

মাঝে মাঝে আপনি একটি ওয়েবসাইট ব্রাউজ করছেন এসময় হটাৎ চারিদিক ফেটে পড়ে উচ্চ কোন শব্দে। হ্যাঁ পেজটিতে রয়েছে একটি ভিডিও অ্যাড আর শব্দটি আসছে সেখান থেকে।

সমাধান: ফ্ল্যাশ মিউট নামে একটা উইন্ডোজ সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন। এই সফটওয়্যারটি ফ্ল্যাশ ভিডিওগুলোকে আপনার অডিও হার্ডওয়্যার ব্যবহার করতে বাধা প্রদান করবে। এই প্রোগ্রামটি ইন্সটলের সময় আপনার অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার বাঁধা দিতে পারে, নির্দ্বিধায় ইন্সটল করুন।

৪. ফার্মভিল:

ফার্মভিলের রিবন, কুইজ রেজাল্ট ইত্যাদি আপনার ফেসবুক ব্যবহারকে বিভীষিকাময় করে তুলছে।

সমাধান: আপনার ফেসবুক পেজের প্রাইভেসি সেটিংসে গিয়ে অ্যাপটিকে ব্লক করে দিন। অথবা যারা ফায়ার ফক্স ব্রাউজার ব্যবহার করছেন ফেসবুক পিউরিটি নামক একটি প্লাগিন ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

৫. ফিশিং:

টুইটার, ফেসবুক, হটমেইল, জিমেইল টক এবং অ্যাডব পিডিএফ ফাইলের মত কোম্পানিগুলো আজকাল ফিসিং এর আক্রমন থেকে মুক্ত নয়। যদিও এগুলো সম্পর্কে আপনার সাবধান থাকেন সবসময় কিন্তু বিরক্ত বোধটুকুতো থেকেই যায়।

সমাধান: আধুনিক সকল ব্রাউজারে অ্যান্টি-ফিশিং সুবিধা রয়েছে। সেগুলো অন করে রাখুন এছাড়া অ্যান্টি ফিশিং সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন, যেমন নরটন।

৬. ঐ উইন্ডোটি খুলবেন না:

একটা লিঙ্ক চাপ দেবার সাথে সাথে পেছনে একটা এক্সট্রা পেজ বা ট্যাব ওপেন হয়, সেখানে আসে অদ্ভুত রকমের বিজ্ঞাপন, সাথে থাকে

সমাধান: ফায়ারফক্স ব্যবহারকারীরা অ্যাড্রেসবারে লিখতে পারেন about:config, ফিল্টার ফিল্ডে অনুসন্ধান করতে পারেন “browser.link”, ডাবল ক্লিক করতে পারেন open_newwindow এবং এর ভ্যালুকে পরিবর্তন করে করুন ১।

৭. একটা ফ্রেম এসে আপনার ভিউকে বাধা প্রদান করছে:

আমি ধরে নিয়েছিলাম নেটস্কেপের সাথে সাথে ব্রাউজার ফ্রেমের মৃত্যু ঘটবে। কিন্তু এখন “ডিগবার” নামক একটা বিষয় প্রায়ই ব্রাউজারগুলোকে আক্রমণ করে।

সমাধান: ফায়ারফক্সের ব্যবহারকারীরা ব্যবহার করতে পারেন গ্রিজ Monkey প্লাগিন।

৮. ইহা একটি বিজ্ঞাপনের লিঙ্ক:

কোন ওয়েবসাইট বিজ্ঞাপন বিহীন নয়।

সমাধান: এখানে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ব্যবহারকারীরা জয়ী হয়েছেন। ইন্টারনেট অপশন->সিকিউরিটি->রেস্ট্রিকটেড সাইট এবং ব্লক করে দিন “*.vibrantmedia.com,” “*.intellitxt.com” and “*.kontera.com.” এই কয়েকটিকে। ফায়ারফক্স ব্যবহার কারীকে “ব্লকসাইট” প্লাগিন সংযুক্ত করতে হবে। আর অপেরা ব্যবহারকারী ওয়েব পেজের উপর রাইট করে ব্লক কনটেন্ট ক্লিক করুন। তারপর যে সকল বিজ্ঞাপনকে ব্লক করবেন সেগুলোকে ক্লিক করুন এবং ক্লিক করুন Done বাটনে।

৯. অনুসন্ধান পৃষ্ঠায় জাঙ্ক সাইট:

অনুসন্ধান পৃষ্ঠার প্রথমদিকের সার্চগুলো কিন্তু বেশীরভাগ সময়ই জাঙ্ক লিঙ্ক হয়ে থাকে।

সমাধান: ব্যবহার করুন অ্যাডভানস সার্চ অপশনটিকে।

১০. এই অনুসন্ধান বাটনটির কোন মূল্য নেই:

কোন ওয়েবসাইটের ভেতরের সার্চ বাটনটি এত বাজে যে সেটা ব্যবহার করবার চিন্তাও করা যায় না। তারা কিছুদিন পূর্বে পরেছেন সেই প্রতিবেদন খুঁজে বার করতে ব্যর্থ হয়।

সমাধান: আপনার প্রিয় সার্চ সাইটটিতে চলে যান এবং সার্চ করুন এই টার্মগুলো ব্যবহার করে, site:nameofsite.com “কি খুঁজছেন তা লিখুন”। এর রেজাল্ট দেখে আপনি নিজেও অবাক হয়ে যাবেন। গুগলের শো অপশন ক্লিক করলে আপনি তথ্যগুলো তারিখ অনুযায়ী সাজিয়েও ফেলতে পারবেন।

১১. অন্য ব্রাউজার ব্যবহার করবার অনুরোধ:

অনেক সময় আপনি এমন অনেক ওয়েব সাইট পাবেন যারা ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ছাড়া অন্য কোন ব্রাউজার সাপোর্ট করে না।

সমাধান: ফায়ারফক্সে “কোরাল আইই ট্যাব” প্লাগিনটি ব্যবহার করতে পারবেন। ক্রোমের জন্য ব্যবহার করুন “আইই ট্যাব” এক্সটেনশনটি।

১২. ক্যাপচা:

ক্যাপচা, এই ছোট্ট ইমেজগুলোর ঘাড়ে থাকে বিশাল এক দায়িত্ব, ব্যবহারকারীকে স্প্যামের হাত থেকে রক্ষা করা। কিন্তু এর চাইতে বিরক্তিকর ব্যাপার আর কিছু হতে পারে না।

সমাধান: মেগাআপলোড ব্যবহারকারীরা “মেগাআপলোড টাইম অ্যাটাক” ব্যবহার করে দেখতে পারেন। “স্কিপস্ক্রিন” ব্যবহার করতে পারেন র‍্যাপিডশেয়ার এবং মেগাআপলোডের জন্য। মাইস্পেস ব্যবহারকারীরা তাদের অ্যাকাউন্ট ফোন নাম্বারের মাধ্যমে ভেরিফাই করালে এই ঝামেলা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। না ক্যাপচার হাত থেকে আসলে কোন মুক্তি নেই।

১৩. এই সাইটটি একটি বোগাস সাইট:

যখন আপনি অ্যাড্রেসবারে ভুল অ্যাড্রেস লেখেন অথবা কোন বন্ধ হয়ে যাওয়া সাইটের লিঙ্কে চাপ দেন তখন একটা ওয়েব পেজ দেখতে পাবেন। যেখানে কিছু ভুয়া লিঙ্ক এ ধরণের স্লোগান দেখতে পাবেন, “What you need, when you need it.” এগুলোকে বলা হয় ডোমেইন পার্কিং।

সমাধান: ফায়ারফক্স ব্যবহারকারীরা এ ধরণের খালি পেজের হাত থেকে মুক্তি পেতে যোগ করুন “*. information.com ” এই তথ্যটুকু আপনার রেস্ট্রিকটেড তালিকার সাথে। দুঃখিত IE তে একই পদ্ধতি কোন কাজ করেনা।


কমেন্ট করার জন্য ধন্যবাদ। Conversion Conversion Emoticon Emoticon