ঐতিহাসিক নোকিয়া ৩৩১০ আর নতুন নোকিয়া ৩৩১০ কি ছিল আর কি হল

এই বছর ২০১৭ এর ফেব্রুয়ারী মাসের শেষের দিকে HMD GLOBAL গোষ্ঠী প্রকাশ করল নোকিয়া ৩৩১০। নোকিয়ার সেই রুপকথার ফোন ৩৩১০ এর আপডেটেড ভার্সন।

একটা নতুন ফোন যখন লঞ্চ করে তাকে নিয়ে অনেক আশা প্রত্যাশা থাকে, আর সেটা যদি নোকিয়া ৩৩১০ হয় তাহলে সেটা আরো যে বেশি হবে তা বলার অবকাশ রাখেনা। কিন্তু তা কি আদৌ পারলো ?
না হেরে গেলো আগের ঐতিহাসিক ৩৩১০ এর কাছে। সেটাত সময়ই বলবে।

চলুন তাহলে দেখা যাক কি ছিল আর কি হল।

আগের ৩৩১০ ফোনটির সাথে আমরা কম বেশি সবাই পরিচিত, সেই ভারি (১৩৩.৭ গ্রাম) ফোন আর সেই মনোটনিক রিংটন আজো ফিরিয়ে নিয়ে যায় সেই নষ্টালজিক দেশে, আমার জীবনের প্রথম এসএমএস আমি ৩৩১০ দিয়ে পাঠিয়েছিলাম। যদিও ফোনটি আমার নিজের ছিল না। এইত না আবার গল্প শুরু করছি।

 

ফোনটির ওজন

আগের ফোনের চেয়ে ৫০ গ্রামের ও বেশি হাল্কা নতুন ৩৩১০, দেখে মনে হল এই ১৭বছরে বেস কসরত করেছে রোগা হয়ত জন্য।


ফোনটির রঙ

নতুন ৩৩১০ চারটি রঙে পাওয়া যাবে,
১। লাল, ২। হলুদ ৩। পুরনো ডার্ক নীল আর ৪। ছাই রঙ বা গ্রে রঙে

ফোনটির স্ক্রীন

নতুন ৩৩১০ বলে কথা কালার স্ক্রীন ত হবেই তবে যদিও ২.৪ ইঞ্চি QVGA স্ক্রীন।

ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম

ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম ভেবেছিলাম অ্যান্ডরয়েড সিস্টেম থাকবে কিন্তু তা নেই, আছে নোকিয়া সিরিজের ৩০+ অপারেটিং সিস্টেম,আগের মতোই।

ফোনটির স্টোরএজ

আগের ফোনটিতে স্টোরএজ বলে কিছু ছিল না, কিন্তু এবার আছে, মাত্র ১৬ এমবি। যদি ও ৩২ জিবি অবধি মেমোরি বাড়ানো যেতে পারে।

ফোনটির মাল্টিমিডিয়া সাপোর্ট

নোকিয়া ৩৩১০ এ গান শোনার জন্য এমপি৩ প্লেয়ার আর এফ.এম রেডিও আছে, সাথে ৩.৫ মিমি. এভি কানেকটর যা আগের পুরনো ৩৩১০ ছিল না।

ফোনটির নেটওয়ার্ক

আগের পুরনো ৩৩১০ মতই নতুন ৩৩১০ ও কেবলমাত্র জিএসএম ২জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করে। মানে কোনো সামাজিক মিডিয়া বা সোসাল মিডিয়া নেই, একদিকে ভাল কেউ বিরক্ত করবে না আপনাকে।

ফোনটির ব্যাটারি

আগের পুরনো ৩৩১০ এ Removable ৯০০ mAh পাওয়ারের ব্যাটারি ছিল, নতুন ৩৩১০ এ ১২০০ mAh পাওয়ারের ব্যাটারি আছে সেটিও Removable। নোকিয়া কোম্পানির মতে ৩১ দিন ব্যাটারি স্ট্যান্ডবাই। আজ-কালকার দিনে সারাদিন ফোনটা চালু রাখা একটা বড় ব্যপার সেখানে ৩১ দিন স্ট্যান্ডবাই মানে ৭ দিন ভাল ভাবে চলতে পারে, কারন কোনো ইন্টারনেটের হাতছানি নেই।


ফোনের ইন্টারনেট

২.৫ জি সাপোর্ট মাক্স তাই প্রি ইন্সটলড অপেরা ব্রাউজার ব্যবহার করতে পারবেন। যা এতটা স্লো আর ছোট মনে হবে যে এক -দু বার বা খুব দরকার না হলে আপনি ব্যবহার করবেন না।

ফোনটির গেম

আগের পুরনো ৩৩১০ মতই নতুন ৩৩১০ এ সেই বিখ্যাত সাপের Snake গেমটি আছে, আর ASPHALT 6 মোবাইল ভার্সন আছে, যা আপনাকে আপনার কৈশোরে বা যৌবনে নিয়ে যাবে নিশ্চয়ই।

ফোনটির ক্যামেরা

আগের পুরনো ৩৩১০ ছিল না, আর নতুন ৩৩১০ এ আছে ২ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা এলইডি ফ্ল্যাশের সাথে। জানি এই ২০ বা ২৫ মেগাপিক্সেলের যুগে বেমানান তবুও (নতুন ৩৩১০ বলে কথা)


ফোনটির কানেক্টটিভিটি

আগের পুরনো ৩৩১০ ছিল না, আর নতুন ৩৩১০ আছে মাইক্রো ইউএসবি ২.০ সাপোর্ট, Bluetooth ৩.০

ফোনটির চার্জিং সিস্টেম

নোকিয়ার মাইক্রো ইউএসবি  চার্জার সিস্টেম আছে নতুন এই ৩৩১০ এ, আগের ফোনটিতে ছিল সেই মোটা পিনের চার্জার।

এবার আসি কোনটা ভাল আর কোনটা খারাপ।

নোকিয়া ৩৩১০ যখন প্রথম প্রকাশ পায় ১৭ বছর আগে তখন এই ফোনটি ছিল সবার চোখেরমনি, কিন্তু এই যুগে ৩৩১০ এর এই রুপ আমি ঠিক মন থেকে মানতে পারছিনা। যদি ও এই ফোনটি ব্যাক আপ ফোন হিসাবে চলতে পারে। কিন্তু দামটি অনেকটা বেশি যে দামে আমরা ভাল স্মার্টফোন পেতে পারি  প্রায় ৪৫০০ টাকা পরতে পারে দাম। 

ডাউনলোড করতে সমস্যা হলে বা ডাউনলোড করতে না পারলে এখানে দেখুন কিভাবে ডাউনলোড করতে হয়?

কমেন্ট করার জন্য ধন্যবাদ। Conversion Conversion Emoticon Emoticon